সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:৫৭ অপরাহ্ন

ইতিহাসে প্রতিদিন আজ (শনিবার) ২৮ জুলাই’২০১৮

ইতিহাসে প্রতিদিন আজ (শনিবার) ২৮ জুলাই’২০১৮

চারু মজুমদারের মৃত্যু
শ্রেণীশত্রু খতম বা নকশাল আন্দোলনের নেতা চারু মজুমদারের আজ মৃত্যুদিন। তার জন্ম ১৯১৫ সালে রাজশাহীর হাগুরিয়া গ্রামে। ১৯৭২ সালের ২৮ জুলাই তার মৃত্যু হয়েছে কলকাতায় গ্রেফতার অবস্থায়। শিলিগুড়ির জমিদার পরিবারে জন্ম হলেও তিনি লেখাপড়ায় অগ্রসর হননি। ১৯৩৩ সালে শিলিগুড়ি হাইস্কুল থেকে ম্যাট্রিক পাসের পর পাবনা এডওয়ার্ড কলেজে কিছুদিন যাতায়াত করেছেন। ৬ বছর ছিলেন আত্মগোপন অবস্থ হয়ে দু’বছর কারাভোগ করেন । ৪৮-এ আবার দু’বছর কারাভোগ। ৫৭, ৬২ তেও কারাভোগ। বাম রাজনৈতিক চর্চায় তিনি কারো সঙ্গে দীর্ঘসময় সহাবস্থান করতে পারেননি। সিপিআই(এম) থেকে তিনি একবার বহিষ্কার এবং পরে নিজেই দলত্যাগ করেন।
৬৯-এ সিপিআই (এমএল) এর সভাপতি হওয়ার মধ্য দিয়ে সারা ভারতে একজন বিপ্লবী নেতা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। তার আন্দোলনের নাম হয় নকশাল আন্দোলন। নকশাল বাড়ির সশস্ত্র কৃষক বিদ্রোহ থেকে এ রকম নামকরণ। শোষনহীন সাম্যবাদের আশায় অনেক প্রতিভাবান যুবক ও যুবতী এ উগ্রবাদী আন্দোলনে অংশ নেয়। অনেক বরেণ্য নেতা, শিল্পী, শিক্ষাবিদ, ভূস্বামীকে এরা হত্যা করে। ভেঙে চুরমার করে অনেক স্থাপনা। ১৯৭০ সালে সিপিআই (এম-এল)-ও ভেঙে যায়। অনেকে তার সঙ্গ ত্যাগ করে। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের বিরোধিতা করলে আরো বহু অনুসারী তাকে ত্যাগ করে। ১৯৭২র ১৬ জুলাই কলকাতায় তিনি গ্রেফতার হন। ২৮ জুলাই আটক অবস্থায় হৃদরোগে তার মৃত্যু হয়েছে বলে সরকার ঘোষণা করে। এই মৃত্যু রহস্যজনক।

১৭৫০ সালের এই দিনে জার্মানীর বিখ্যাত সঙ্গীতজ্ঞ ইউহান সাবাসতিয়ান বাচ ৬৫ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন। তিনি শিশুকাল থেকেই সঙ্গীত চর্চা শুরু করেন এবং এ বিষয়ে খুব দ্রুত পারদর্শী হয়ে ওঠেন। ধর্মের প্রতি বিশেষ আকর্ষণের কারণে তার অধিকাংশ গানের সূরে ধর্মীয় আবেগ ফুটে উঠেছে। তিনি ১৮শ’ শতকে মরমী সঙ্গীতের সূরকার হিসাবে খ্যাতি অর্জন করেন। জার্মানীর সঙ্গীতের ইতিহাসে তিনি ব্যাপক অবদান রাখেন।

১৮২১ খ্রীব্দের এই দিনে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ পেরু স্পেনের উপনিবেশ থেকে মুক্ত হয়ে স্বাধীনতা লাভ করে এবং এ দিনটিকে তারা জাতীয় দিবস হিসাবে পালন করে। স্থানীয় ‘ইনকা’ গোত্র ১২শ’ শতাব্দী থেকে ১৬শ’ শতাব্দী পর্যন্ত দক্ষিণ আমেরিকার উত্তর পশ্চিম এলাকা শাসন করে। কিন্তু ১৬ শ’ শতাব্দীর প্রথম দিকে স্পেন ‘ইনকা’ গোত্র বা রেড ইন্ডিয়ানদেরকে নির্মমভাবে হত্যা করে পেরু দখল করে নেয়। স্পেনের উপনিবেশবাদীরা ঐ অঞ্চলের সম্পদ লুট করায় পেরুর জনগণের মধ্যে স্বাধীনতাকামী আন্দোলন দানা বেঁধে ওঠে। শেষ পর্যন্ত সেন মার্টিন ও সিমোন বলিভারের মত দক্ষিণ আমেরিকার স্বাধীনতাকামী নেতাদের নেতৃত্বে ব্যাপক আন্দোলন গড়ে ওঠে এবং পেরু স্পেনের উপনিবেশ থেকে মুক্ত হয়। পেরুর আয়তন ১২ লক্ষ ৮৫ হাজার ২১৬ বর্গ কিলোমিটার এবং এটি প্রশান্ত মহাসাগরের উপকূলে অবস্থিত। পেরুর চারদিকে ইকুয়েডর, কলম্বিয়া, চিলি, ব্রাজিল ও বলিভিয়ার সীমান্ত রয়েছে।

১৮৭৮ খ্রীষ্টাব্দের এই দিনে রাশিয়া, জার্মানী, ফ্রান্স, বৃটেন ও অষ্ট্রিয়ার মধ্যে ঐতিহাসিক বার্লিন চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। তৎকালীন জার্মানীর চ্যান্সেলর বিসমার্কের নির্দেশে বার্লিন কংগ্রেস গঠিত হয়। এই চুক্তি স্বাক্ষরের ফলে জার্মানীর রাজনৈতিক ও সামরিক ক্ষমতা অনেক বৃদ্ধি পায় এবং দেশটির সম্প্রসারণকামী লক্ষ্য বাস্তবায়নের সুযোগ তৈরী হয়। প্রকৃতপক্ষে ১৮৭৮ সালে স্বাক্ষরিত বার্লিন চুক্তিই প্রথম বিশ্বযুদ্ধের ক্ষেত্র প্রস্তুত করেছিল।

১৯১৪ সালের এই দিনে প্রথম বিশ্ব যুদ্ধের প্রাক্কালে অষ্ট্রিয়ার স¤্রাট সার্বিয়ায় তার পুত্রকে হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্রকে সার্বিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরুর ঘোষণা দিয়েছিলেন। কিন্তু বলা হয়ে থাকে সার্বিয়ার জনগণ সেদেশের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে অষ্ট্রিয়ার হস্তক্ষেপের বিরোধীতা করায় এবং তারা অষ্ট্রিয়ার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করার কারণেই মূলত যুদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল। প্রথম বিশ্ব যুদ্ধে জার্মানী, অষ্ট্রিয়া এবং ওসমানীয় শাসকরা ছিল একদিকে, অন্যদিকে রাশিয়া, ফ্রান্স, বৃটেন ও সার্বিয়া ছিল তাদের প্রতিপক্ষ শক্তি।

১৯৬০ সালের এই দিনে খ্যাতনামা বৃটিশ লেখক ইথেল লিলিয়ান ভিনিচ মৃত্যৃবরণ করেন। তিনি ১৮৬৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন। জ্যাক ডায়মন্ডসহ আরো বেশ কিছু উপন্যাস লেখার জন্য তিনি অমর হয়ে আছেন।

১৯৬৭ সালের এই দিনে পূর্ব চীনের তাঙ্ক শান শহরে সাত দশমিক নয় মাত্রার ভয়াবহ ভুমিকম্প হয়েছিল। ঐ ভুমিকম্পে ছয় লাখেরও বেশী মানুষ হতাহত হয়েছিল। অবশ্য সরকারী হিসাবে ২ লক্ষ ৪০ হাজার মানুষ নিহত হওয়ার কথা বলা হয়। ১৫৫৬ সালের পর এবং বিংশ শতাব্দীতে এটা ছিল চীনের দ্বিতীয় বৃহত্তম ভূমিকম্প। ১৫৫৬ সালের ভূমিকম্পে আট লক্ষ ৩০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছিল।

হিজরী ১৮৩ সালের এই দিনে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর অন্যতম বংশধর এবং পবিত্র আহলে বাইতের অন্যতম সদস্য ইমাম মুসা কাজেম (আ:) শহীদ হন। তিনি হিজরী ১২৮ সালে মক্কা ও মদিনা শহরের মাঝখানে আব্ব্জ€Œওয়া নামক একটি স্থানে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ২০ বছর পর্যন্ত তার পিতা ইমাম জাফর সাদেক (আ:) এর সান্নিধ্য লাভের সৌভাগ্য অর্জন করেন। পিতার মৃত্যুর পর ইমাম মুসা কাজেম (আ:) দীর্ঘ ৩৫ বছর মুসলমানদের ইমামতের দায়িত্ব পালন করেন। এই মহান দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে তাঁকে অনেক দু:খ-কষ্ট সহ্য করতে হয়েছে। তাঁর ইমামত কাল ছিল আব্বাসীয় খলিফা মনসুর ও হারুনুর রশিদের শাসনামলের যুগ। ক্ষমতাসীন শাসক গোষ্ঠীর পক্ষ থেকে আরোপিত কঠিন সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও ইমাম কাজেম(আ:)এর জ্ঞান বিতরণ ও সাংস্কৃতিক কর্মসূচী অব্যাহত থাকে। ইমাম মুসা কাজেম (আ:) এর সময়কালে জ্ঞান-বিজ্ঞান ও মুসলিম সভ্যতার বিকাশ এবং মুসলিম জাতিগুলোর মধ্যে সম্পর্কের উন্নয়ন ঘটে। তার ব্যাপক জনপ্রীয়তায় আতঙ্কগ্রস্ত বাদশাহ হারুন তাকে বন্দী করে এবং একটা পর্যায়ে বিষ প্রয়োগ করে এই মহান ইমামকে শহীদ করে।

কলম্বিয়া থেকে ইংল্যান্ডের প্রথম আলু আমদানি (১৫৮৪)
ওয়ারশ যুদ্ধ শুরু । সুইডেনের শার্ল গুস্তাভ পোল্যান্ডের দখলে (১৬৫৬)
কবি আলাওলের তোহফা’ কাব্য রচনা সমাপ্ত (১৬৬৫)
বিশ্বখ্যাত জার্মান সংগীত ¯্রষ্টা ইয়োহান সেবাস্টিয়ান বাখের মৃত্যু (১৭৫০)
বপ্লবী নেতা ম্যাক্সি মিলানকে গিলোটিনে হত্যা (১৭৯৪)
স্পেনের নিয়ন্ত্রণ থেকে পেরুর স্বাধীনতা ঘোষণা (১৮২১)
জার্মানির ঐক্য প্রতিষ্ঠার অন্যতম উদ্যোগী ফল বিসমার্কের মৃত্যু (১৮৯৮)
সুরকার-সংগীত পরিচালক কমলদাস গুপ্তের জন্ম (১৯১২)
বঙ্গীয় কৃষকলীগ প্রতিষ্ঠিত (১৯১৩)
অষ্ট্রিয়া-সার্বিয়ার ওপর আক্রমণে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু (১৯১৪)
ইতালির ফ্যাসিস্ট পার্টির বিলুপ্তি (১৯৪৩)
জর্দানের বাদশা ইবনে হোসেইন আততায়ীর গুলিতে নিহত (১৯৫১)
চীনের টাংশানে ভয়াবহ ভূমিকম্পে ৮ লাখ লোকের প্রাণহানি (১৯৭৬)
সোভিয়েত ইউনিয়নসহ সমাজতান্ত্রিক দেশগুলোর লস এঞ্জেলসে অনুষ্ঠিত অলিম্পিক স্পোর্টস বয়কট (১৯৮৪)
ভারতের শীর্ষস্থানীয় ব্যাডমিন্টন তারকা সৈয়দ মোদী আততায়ীর গুলিতে নিহত (১৯৮৮)
ভারতের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র অভিনেতা আমজাদ খানের মৃত্যু (১৯৯২)

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 bnewsbd24.Com
Design & Developed BY Md Taher