সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ০৭:৫৮ অপরাহ্ন

ইতিহাসের এই দিনে আজ বৃহস্পতিবার, ২৬ জুলাই ২০১৮

ইতিহাসের এই দিনে আজ বৃহস্পতিবার, ২৬ জুলাই ২০১৮

১৯৭৯ সালের এ দিনে তেহররানে প্রথম জুমআর গণ-জামায়াত হয়। ইমাম খোমেনী (রহ) নেতৃত্বে ইসলামী বিপ্লবের গৌরব-উজ্জ্বল বিজয়ের জুমআর গণ-জামায়াতের এই ঐতিহাসিক যাত্রা শুরু হল। এর আগে রাজনৈতিক পরিস্থিতি অনূকুলে না থাকায় ইরানে জুমআর গণ-জামায়াত অনুষ্ঠিত হতো না। তেহরানের প্রথম জুমআর গণ-জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়েছিলো তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ে আর এই জামায়াতের ইমামতি করেছিলেন মরহুম আয়াতুল্লাহ তেলেগানী। সে থেকে আজ পর্যন্ত ইরানের প্রতিটি শহরে গুরুত্বের সাথে জুমআর জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়ে চলেছে। এই জুমআর নামাজের খোতবায় দেশ-জাতি- ইসলাম এবং মুসলিম বিশ্বের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়।

১৮৫৬ খ্রিষ্টাব্দে ইতিহাসের এ দিনে আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনে ভূবন বিখ্যাত নাট্যকার জর্জ বার্ণাড’শ জন্মগ্রহণ করেছিলেন। ২০ বছর বয়সে তিনি লন্ডনে চলে যান এবং বাকি জীবন সেখানেই কাটান। তিনি সংগীত ও সাহিত্য সমালোচনা লেখার মধ্য দিয়ে অর্থ অর্জন করা শুরু করলেও তার প্রতিভা বিকশিত হয়ে নাট্য রচনার মধ্য দিয়ে। তিনি ৬০টিরও বেশি নাটক রচনা করেছেন। ১৯২৫ সালে তাকে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়। তবে গণ-সংবর্ধনার প্রতি বিরাগ থাকায় তিনি নোবেল পুরস্কার প্রত্যাখ্যান করবেন বলে মনস্থ করেছিলেন। কিন্তু স্ত্রীর পীড়াপীড়িতে তিনি শেষ পর্যন্ত সে পুরস্কার প্রত্যাখ্যান না করলেও নোবেল পুরস্কার লব্ধ অর্থ বার্ণাড’শ গ্রহণ করেন নি। সুইডিশ ভাষায় লেখা বই ইংরেজী অনুবাদ করার কাজে ওই অর্থ তিনি ব্যয় করার আহবান জানিয়েছিলেন। এছাড়া ১৯৩৮ সালে তাকে অস্কার পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। একমাত্র বার্ণাড’শই একাধারে অস্কার এবং নোবেল পুরস্কার পাওয়ার সৌভাগ্য অর্জন করেছেন। ইসলাম সর্ম্পকে বার্ণাড’শর খুবই উঁচু ধারণা ছিলো তিনি একমাত্র এই ধর্মকে মানুষের সমগ্র জীবনের জন্য উপযোগী বলে মনে করতেন। এছাড়া সমগ্র ইউরোপ একদিন এই ধর্ম গ্রহণ করবে বলে তিনি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করতেন।

১৯৫৬ খ্রিষ্টাব্দে ইতিহাসের এ দিনে মিসরের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জামাল আবদুন নাসের সুয়েজ খালকে জাতীয়করণ করেন। সুয়েজ খালের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব তিনি মিসরীয় সংস্থার কাছে ন্যস্ত করেন। ভূমধ্যসাগর এবং লোহিত সাগরের মধ্যে সংযোগ স্থাপনকারী সুয়েজখাল ফরাসি প্রকৌশলীরা ১৮৬৯ খ্রিষ্টাব্দে খনন করেছিলেন। পরবর্তী ৮৭ বছর বৃটিশ ও ফরাসিরাই মূলত সুয়েজ খালকে নিয়ন্ত্রণ করেছে। দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের পর থেকেই সুয়েজ খাল অঞ্চল থেকে বৃটিশ সৈন্যদের প্রত্যাহারের জন্য মিসর চাপ দিতে থাকে। ১৯৫৬ সালে শেষ পর্যন্ত জামাল আবদুন নাসের সুয়েজ খালকে জাতীয়করণ করেন। এই খাল থেকে লব্ধ রাজস্ব তিনি নীল নদের উপর একটি বাঁধ নির্মাণের কাজে ব্যয় করার পরিকল্পনা করেন। বর্তমানে সুয়েজ খাল দিয়ে দৈনিক গড়ে ৫০টি জাহাজ যাতায়াত করে এবং প্রতিবছর গড়ে এই খাল পথে ত্রিশ কোটি টনের বেশি মালামাল আনা নেয়া করা হয়ে থাকে।

১৯০৮ খ্রিষ্টাব্দের এ দিনে যুক্তরাষ্ট্রের আভ্যন্তরীণ গোয়েন্দা সংস্থা ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেসটিগেশন বা এফবিআই গঠন করা হয়েছিলো। অবশ্য সে সময় এই সংস্থার নাম রাখা হয়েছিলো অফিস অব দ্যা চীফ এক্সজামিনার। একবছর পরে এই সংস্থার নাম পরিবর্তন করে ব্যুরো অব ইনভেসিগেশন রাখা হয়। ১৯৩৫ খ্রিষ্টাব্দে এই সংস্থার নাম আবারো পরিবর্তন করা হয় এবং ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেসটিগেশন বা এফবিআই হিসেবে নামকরণ করা হয়। মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র থেকে শুরু করে অনেক মানবতাবাদী ব্যক্তিত্ব এই সংস্থার হাতে হয়রানি হয়েছে। এই সংস্থা নানা হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত বলেও অভিযোগ শোনা যায়। প্রেসিডেন্ট নিক্সনের আমলে ওয়াটার কেলেংকারীর সাথে এফবিআইয়ের যোগসুত্র ছিলো, তা কংগ্রেসের তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে।

১৯৮০ সালের এ দিনে ইরানের শেষ শাহ মুহাম্মদ রেজা খান মিসরের রাজধানী কায়রোতে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি পাহলভী বংশের দ্বিতীয় ও শেষ শাসক ছিলেন। ১৯১৯ সালে তিনি জন্মগ্রহণ করেছিলেন। ইংরেজদের সহায়তায় তিনি পিতা রেজা খানের স্থলাভিষিক্ত হন। আর এ কারণে তিনি বরাবর ইংরেজ তথা বিদেশী শক্তিদের অবৈধ স্বার্থ রক্ষায় তৎপর ছিলেন। ১৯৭৯ সালে ইমাম খোমেনী (রহ) নেতৃত্বে ইরানে ইসলামী বিপ্লবের বিজয়ের আগে ভাগে মুহাম্মদ রেজা শাহ পাহলভী ইরান ত্যাগ করেন। প্রথমে তিনি মিসরে গমন করেছিলেন পরে আরো কয়েকটি দেশেও যান। কিন্তু সে সব দেশসহ যুক্তরাষ্ট্র তাকে আশ্রয় দিতে অস্বীকার করলে তিনি আবার মিসরে ফিরে আসেন এবং মিসরের মাটিতেই শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন।

১৯৬৫ খ্রিষ্টাব্দের এদিনে মালদ্বীপ স্বাধীনতা লাভ করে। জনসংখ্যার দিক থেকে এটি এশিয়ার সবচেয়ে ক্ষুদ্র রাষ্ট্র একই সাথে এটি সবচেয়ে ক্ষুদ্র মুসলিম দেশ। ১১৫৩ খ্রিষ্টাব্দে মালদ্বীপে ইসলামের আগমন ঘটেছিলো। ১১৫৩ থেকে ১১৬৮ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত মালদ্বীপ শাসন করেছে স্বাধীন ইসলামিক সালতানাত। ১৫৫৮ খ্রিষ্টাব্দের দিকে মালদ্বীপে পোর্তুগীজ আধিপত্যের বিস্তার ঘটে। ১৬৫৪ খ্রিস্টাব্দের দিকে মালদ্বীপে ডাচ আধিপাত্যের বিস্তার ঘটে। ১৮৮৭ সালে মালদ্বীপ বৃটিশ শাসনের আওতায় চলে যায়। ১৯৬৫ সালের ২৬ জুলাই মালদ্বীপে বৃটিশ শাসনের অবসান ঘটে। এরও প্রায় ৫ বছর পরে অর্থাৎ ১৯৭০এর দশক থেকে মালদ্বীপে পর্যটন শিল্পের বিকাশ ঘটতে শুরু করে।

পারস্যের কবি হাফিজ সিরাজির ইন্তেকাল (১৩৮৯)
নেদারল্যান্ডসের স্বাধীনতা ঘোষণা (১৯১৮)
নেপলসে ভয়াবহ ভূমিকম্পে ৬ হাজার লোকের প্রাণহানি (১৮০৫)
লাইবেরিয়ার স্বাধীনতা ঘোষণা (১৮৪৭)
ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের প্রচেষ্টায় ভারতবর্ষে হিন্দু সম্প্রদায়ের বিধবা বিবাহ আইন চালু (১৮৫৬)
নৈতিক মঞ্চ হিসেবে কলকাতায় ইন্ডিয়ান এ্যাসোসিয়েশন (ভারত সভা) গঠিত (১৮৭৬)
লন্ডনে ইভিনিং নিউজ’ পত্রিকার প্রকাশনা শুরু (১৮৮১)
গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই গঠিত (১৯০৮)
কবি সাহিত্যিক মোহিতলাল মজুমদারের মৃত্যু (১৯৫২)
ফিদেল ক্যাস্ট্রোর নেতৃত্বে কিউবার স্বৈরাচারী বাতিস্তা সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু (১৯৫৩)
সুয়েজখালকে মিসরের জাতীয়করণ (১৯৫৬)
সোভিয়েত কমিউনিস্ট পাটির মার্কসবাদ লেলিনবাদ থেকে সরে আসার সিদ্ধান্ত (১৯৯১)
দক্ষিণ আফ্রিকার অলিম্পিকের সদস্যপদ লাভ (১৯৯১)
বাংলাদেশে চাঞ্চল্যকর রীমা হত্যা মামলায় পাষ- স্বামী মুনিরের ফাসি কার্যকর (১৯৯৫ রাত ১২.০১)
বিচারপতি হত্যার অভিযোগে ইন্দোনেশিয়ায় সুহার্তোর ছেলে টমির মৃত্যুদ- (২০০২)

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 bnewsbd24.Com
Design & Developed BY Md Taher