বুধবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২১, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
টিমওয়ার্ক দুর্নীতি হয়, তবে ব্যক্তিগত দুর্নীতি বেশি: পরিকল্পনামন্ত্রী ভর্তি ও টিউশন ফি আদায়ে অনেক স্কুলই মাউশির নির্দেশনা মানছে না দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে উপজেলা পর্যায়ে তৈরি হচ্ছে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র কলাপাড়া প্রেসক্লাব সভাপতির রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া-মোনাজাত মোবাইল প্রেম অতপর: কুয়াকাটায় বেড়াতে এনে প্রেমিকাকে ধর্ষণ! করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২২ মৃত্যু, শনাক্ত আরও ৮৪৯ জন বেসরকারি খাতে অনাদায়ী রয়েছে হাজার হাজার কোটি টাকা বকেয়া বিদ্যুৎ বিল দেশের মহাসড়ক এবং এক্সপ্রেসওয়েতে যানবাহন চলাচলে টোল দিতে হবে করোনায় আরও ২৫ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১০৭১ সহজে আর্থিক কার্যক্রম সম্পন্ন হওয়ায় দ্রুত জনপ্রিয় হচ্ছে ইন্টারনেট ব্যাংকিং
রাজধানীর পানি নিষ্কাশনের কাজ পাচ্ছে সিটি করপোরেশন

রাজধানীর পানি নিষ্কাশনের কাজ পাচ্ছে সিটি করপোরেশন

বি নিউজ : ঢাকা শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে পানি নিষ্কাশনের দায়িত্ব সিটি করপোরেশনের কাছে হস্তান্তরের নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এটি বাস্তবায়নে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী এক মাসের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক পরামর্শ সভা শেষে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম এসব কথা জানান। তিনি বলেন, আমি আগেও বলেছি ড্রেনেজ ব্যবস্থা, পানি নিষ্কাশনের জন্য সিটি করপোরেশন দায়বদ্ধ। কিন্তু রাষ্ট্রপতির আদেশে ওয়াসার ওপর এই দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল। এখন দুই সিটির মেয়র চান, তারা এটি ভালোভাবে করতে পারবেন। ড্রেনেজ সিস্টেমটা সিটি কর্পোরেশনের কাছে হস্তান্তর করতে একটি সিদ্ধান্তে আসতে পেরেছি। এ বিষয়ে একটি নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে। এজন্য পানি সম্পদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ইব্রাহীমকে প্রধান করে ১২ সদস্যের একটি কমিটি করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, সিটি করপোরেশন কিভাবে কাজ করবে সেই সক্ষমতা যাচাই করার জন্য কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি আগামী ৩০ দিনের মধ্যে রিপোর্ট দেবে। সেই রিপোর্টের আলোকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে। তাজুল ইসলাম বলেন, কাজটা ওয়াসা করুক সেটা আমি রিকমেন্ড করি না। ওয়াসার চেয়ে সিটি করপোরেশন কাজটা ভালো করতে পারবে। তবে এই কাজ করতে গিয়ে ওয়াসার কিছু সক্ষমতা অর্জন হয়েছে। সিটি করপোরেশনের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করা হলে সেই সক্ষমতাও সিটি করপোরেশনের কাছে নেওয়া উচিত। তাজুল ইসলাম বলেন, আমি আগেও বলেছি সিটি করপোরেশন ড্রেনেজ ব্যবস্থা, পানি নিষ্কাশনের জন্য দায়বদ্ধ। কিন্তু রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে ওয়াসার উপর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। দুই সিটির মেয়র চান তারা এটি করলে এটি ভালো করতে পারবেন। ড্রেনেজ সিস্টেমটা সিটি করপোরেশনকে দিতে একটি নীতিগত সিদ্ধান্তে আসতে পেরেছি। এ বিষয়ে একটি নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে। এজন্য একটি কমিটিও করেছি, পানিসম্পদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ইব্রাহীমকে প্রধান করে ১২ সদস্য বিশিস্ট একটি কমিটি করা হয়েছে। রাস্তা খোঁড়ার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, পৃথিবীর যেসব আধুনিক শহর গড়ে উঠেছে সেগুলো করার সময় ইউটিলিটিক্যাল সাপোর্ট দেওয়ার জন্য পাইপলাইন স্থাপন করতে হয় এবং সময় সময় ক্যাপাসিটির জন্য পরিবর্তনও করতে হয়। এ কাজটা করার জন্য তারা ডাকটিং করেছে, কিন্তু ঢাকা শহরের ক্ষেত্রে ডাকটিং করা হয়নি। এটার সত্যিকার ম্যাপ খুঁজে পাওয়া খুব কষ্টকর। পানির লাইন কোথা দিয়ে গেছে কেউ জানে না। যে কারণে এই সমস্যায় আমাদের পড়তে হচ্ছে। এ বিষয়ে মেয়রসহ বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে কীভাবে এগোতে পারি। নতুন যে শহরগুলো গড়ে উঠছে সেগুলোতে ডাকটিং ফ্যাসিলিটি থাকবে। তবে যেগুলো হয়ে গেছে সেগুলো নিয়ে তো কিছু করার নেই, ফলে আমাদের কিছু সীমাবদ্ধতা রয়ে গেছে। মন্ত্রী বলেন, পানি নিষ্কাশনের জন্য জনবল, যন্ত্রপাতিসহ সবকিছুই সিটি করপোরেশনের কাছে আছে, তাদের সক্ষমতা আছে। আমাদের অবকাঠামোগত কিছু সমস্যা আছে। কিছু বক্স কালভার্ট করা হয়েছে, এগুলো ২০/৩০ বছর সংস্কার করেনি, ফলে পুরোটাই অকার্যকর হয়ে গেছে। তার ভিতরে মিলিয়ন মিলিয়ন টন বর্জ্য জমা হয়ে এখন সেটা অকার্যকর। সেটা কীভাবে করা যাবে তা নিয়ে কারিগরি টিম পর্যালোচনা করবেন যাতে একটা সময়ের ব্যবধানে যেন হস্তান্তর করতে পারি। আগেও সিটি করপোরেশনের কাছে জলাবদ্ধতা নিরসনে নিষ্কাশনের দায়িত্ব নিতে চিঠি লিখেছে ওয়াসা, কিন্তু তখন তারা আগ্রহ দেখায়নি। নতুন মেয়ররা এসে এই দায়িত্ব নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তবে আমাদের দেরি হচ্ছে করোনার কারণে, কিন্তু ৩০ দিন সময় দেওয়া হয়েছে ঝুলে থাকার জন্য না তাড়াতাড়ি করার জন্য। নইলে তো তিনমাস দেওয়া হতো। সভায় অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম, ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান এবং স্থানীয় সরকারের সিনিয়র সচিব হেলালউদ্দিন আহমদ প্রমুখ।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018-20
Design & Developed BY Md Taher