রবিবার, ১৮ অক্টোবর ২০২০, ০৩:২৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
মধ্যবর্তী নির্বাচনের নামে মধ্যবর্তী টালবাহানার প্রয়োজন নেই: ওবায়দুল কাদের পুকুর খুঁড়তেই মিলল বিশ্বযুদ্ধের যুদ্ধবিমানের বিধ্বস্ত অংশ করোনায় মৃত্যুর মিছিলে আরও ২৩ জন রায়হান উদ্দিন হত্যায়- এসআই আকবরের দেশত্যাগ রোধে হিলি সীমান্তে বাড়তি সতর্কতা কলাপাড়ায় আটককৃত কচ্ছপ আন্ধারমানিক নদীতে অবমুক্ত মহিপুরে র‌্যাবের অভিযান- ওয়ান শুটারগান ও রিভলবারসহ দুই জনকে গ্রেফতার কুয়াকাটায় সহিংসতা বিরোধী সাইকেল র‌্যালি শাস্তির আওতা বাড়িয়ে জাল নোট প্রতিরোধে নতুন আইন হচ্ছে দেশে করোনায় সুস্থতার সংখ্যা ৩ লাখ ছাড়াল ভবন নির্মাণে নিরাপত্তা ব্যবস্থা উপেক্ষিত বাড়ছে দুর্ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা
নতুন শুরুর জন্য তৈরি তাসকিন

নতুন শুরুর জন্য তৈরি তাসকিন

বি নিউজ স্পোর্টস: করোনার এই সর্বগ্রাসী মহামারি কালে সবার চেহারায় কমবেশি বদল এসেছে। তাসকিন আহমেদকে দেখে তার পরও একটু চমকে উঠতে হলো। দীর্ঘদেহী এই তরুণ আরো ছিপছিপে হয়েছেন। ওজন কমিয়ে, মেদ ঝরিয়ে ফিরে গেছেন যেন কৈশোরে। তাসকিন হেসে বললেন, ‘পাঁচ-ছয় কেজি কমেছে ওজন।’ সঙ্গে দুরন্ত ফিট হয়ে উঠেছেন। বলে আগুন ঝরছে, গতি বেড়েছে, বাউন্সার দিয়ে চমকাচ্ছেন। বোঝাই যাচ্ছে, নতুন শুরুর জন্য একেবারে তৈরি তাসকিন। প্রায় বছর তিনেক ধরে নিজের সঙ্গে লড়াই করছেন ইনজুরি এড়িয়ে সেরা ছন্দে ফেরার জন্য। এখন বলা যায়, সেই অপেক্ষার হয়তো অবসান ঘটতে চলেছে। তবে তাসকিন বলছেন, বিশ্বমানের হতে হলে আরো উন্নতি করতে হবে। ইনজুরি আর ফিটনেস নিয়ে তাসকিনের সমস্যা আজকের নয়। সেই যুবদলের ক্রিকেটার ছিলেন যখন, তখন থেকে মাশরাফিভক্ত তাসকিনের সঙ্গী ইনজুরি। তার পরও ৯-৯ করে ৩২টি ওয়ানডে, ১৯টি টি-টোয়েন্টি খেলে ফেলেছেন। অনেক অপেক্ষার পর ৫টি টেস্টও খেলেছেন। ২০১৭ সালের দিকে মনে হচ্ছিল, এখন ইনজুরিকে পেছনে ফেলে নিয়মিত হবেন। কিন্তু সেই সময়টা তাকে আবারও চোট মাঠের বাইরে ঠেলে দেয়। চোটকে হারিয়ে ২০১৯ বিপিএলে দারুণ ছন্দে ফেরেন। মনে হচ্ছিল, বিশ্বকাপ দিয়েই ফিরবেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। মঞ্চ প্রস্তুত ছিল। কিন্তু বিপিএলে আবারও ইনজুরি। অনেক নাটকীয়তার পরও বিশ্বকাপ মিস করলেন। ২০১৭ সালে শেষ টেস্ট ও ওয়ানডে খেলেছেন। ২০১৮ সালে টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। মানে, দুই বছরেরও বেশি হয়ে গেল পারফরম করেও অপেক্ষায় আছেন, অপেক্ষা বাড়াচ্ছিল চোট। তাসকিন একটা ব্যাপার উপলব্ধি করেছেন, ফিটনেস না বাড়ালে এই চোটকে এড়ানো যাবে না। তাই লকডাউনের সময়টাকে বেছে নিলেন ফিটনেসে নাটকীয় উন্নতি করার জন্য, ‘লকডাউনের সময় আমি একটা গোল ঠিক করলাম। দেখলাম, একা কাজ করে জায়গায় পৌঁছাতে পারব না। তাই একজন ইনস্ট্রাক্টরের সঙ্গে কাজ করলাম। উনি খুব হেল্প করেছেন। আমরা একেবারে সায়েন্টিফিকভাবে ওজন কমিয়েছি এবং ফিটনেস নিয়ে কাজ করেছি। আমার ক্যারিয়ারে এটাই সবচেয়ে ভালো ফিটনেসের অবস্থা। অবশ্য বিশ্বমানে পৌঁছাতে গেলে আমাকে আরো কষ্ট করতে হবে।’ ফিটনেসের পাশাপাশি এই সময়ে স্কিল নিয়েও কাজ করলেন। আর এ ব্যাপারে তাকে সহায়তা করলেন তার শৈশবের কোচ মাহবুব আলী জাকি, সাবেক জাতীয় দল অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন। এই সময়ে ধানমন্ডিতে এক মাঠে নিয়মিত বোলিং করেছেন। ছোট-খাটো ত্রুটি সংশোধন করতে ভিডিও পাঠিয়েছেন বিশেষজ্ঞদের কাছে। সব মিলিয়ে ফলটা পাচ্ছেন এখন। জাতীয় দলের যে দুটো অনুশীলন ম্যাচ হলো, সেখানে দুই ইনিংসে ৬ উইকেট নেওয়া তাসকিন ছিলেন সবচেয়ে বড় আকর্ষণ। এখন অপেক্ষায় আছেন ত্রিদলীয় টুর্নামেন্টে এই পারফরম্যান্স ধরে রাখার। আর চূড়ান্ত অপেক্ষা জাতীয় দলের জন্য। তাসকিন বিশ্বাস করেন, পরিশ্রমের সেই ফলটা আসবে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2018-20
Design & Developed BY Md Taher