বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০৩:০৬ অপরাহ্ন

জামালপুরে কাজ শেষ হওয়ার আগেই সড়কের বেহাল দশা

জামালপুরে কাজ শেষ হওয়ার আগেই সড়কের বেহাল দশা

বি নিউজ : জামালপুর সদরের দিগপাইত-রামকৃষ্ণপুর-চাঁনপুর বাজার সড়কের সংস্কার কাজ চলাকালেই কার্পেটিং উঠে যেতে, পাথর খসে পড়তে দেখা যাচ্ছে। সড়ক নির্মাণের কাজে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ এনেছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে এক সপ্তাহ আগে এই অফিসে যোগদানের কথা উল্লেখ করে জামালপুর সদর উপজেলা প্রকৌশলী রমজান আলী জানান, নিম্মমানের কাজের অভিযোগে স্থানীয়রা সড়কের কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। জামালপুর সদর উপজেলার দিগপাইত-রামকৃষ্ণপুর-চাঁনপুর বাজার সড়কের ৮ দশমিক ৬০ কিলোমিটার সড়ক সংস্কার কাজের জন্য দরপত্র আহ্বান করে এলজিইডি। সড়কটি প্রশস্তকরণ, কার্পেটিং, মেকাডম, গাইডওয়ালসহ বিভিন্ন কাজ করতে ব্যয় ধরা হয়েছে সাত কোটি পাঁচ লাখ টাকা। ২০১৭ সালের ২৮ অক্টোবর শুরু হওয়া এই কাজ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এমডিই-এমএই জয়েন্টভেঞ্চারের শেষ করার কথা ছিল ২০১৮ সালের ২৭ অক্টোবর। এই সড়কের ৮০ ভাগ কাজ বাস্তবায়ন দেখিয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি টাকা বিল উত্তোলন করেছে বলে জানা গেছে। দিগপাইত ইউনিয়নের গোপিনাথপুর গ্রামের আবদুল ওয়াহাব বলেন, সড়কের কাজে নিম্নমানের ইট, পাথর, বিটুমিনসহ সব সামগ্রী নিম্নমানের ব্যবহার করা হয়েছে। কাজ শেষের আগেই সড়কের পাথর খুলে যাচ্ছে, কার্পেটিং উঠে যাচ্ছে। একই গ্রামের আবু সাঈদ মুরাদ বলেন, ইট হাত দিয়ে ধরলেই ভেঙে যায়। আগে কখনো এত খারাপ মানের কাজ দেখেননি উল্লেখ করে গোপিনাথপুর গ্রামের দুদু আকন্দ শঙ্কা প্রকাশ করেন-‘ছয় মাসও টিকবে না এই সড়ক।’ ময়নার মোড় এলাকার আবদুর রাজ্জাক বলেন, নিম্মমানের কাজ করায় প্রতিবাদ করায় ঠিকাদারের লোকজন প্রতিবাদকারীদের হুমকি দেয়। ঠিকাদারের লোকজন তাদেরকে ‘তুলে নেবার হুমকিও দিয়েছে।’ নিম্মমানের কাজের সাথে জড়িত ঠিকাদার ও এলজিইডির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে আইনের আওতায় আনার দাবি এলাকাবাসীর। জামালপুর এলজিইডির সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী সায়েদুজ্জামান সাদেক জানান, সড়ক সংস্কার কাজে কোনও অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেলে তদন্ত করে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে অনিয়ম ও দুর্নীতির সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন দিগপাইত-রামকৃষ্ণপুর-চাঁনপুর বাজার সড়ক সংস্কার কাজের সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার সামছুদ্দিন হায়দার দিলিপ। সড়কটির সংস্কার কাজে অনিয়ম নিশ্চিত করে জামালপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোজাফ্ফর হোসেন বলেন, তদন্ত করে অনিয়মের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 bnewsbd24.Com
Design & Developed BY Md Taher