শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:৫৬ অপরাহ্ন

ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির আওতায় ১ লাখ ৬৭ হাজার জনের কর্মসংস্থান

ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির আওতায় ১ লাখ ৬৭ হাজার জনের কর্মসংস্থান

বি নিউজ : ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির আওতায় এ পর্যন্ত ৩৭টি জেলার ১২৮টি উপজেলায় ১ লাখ ৬৯ হাজার ৩৩২ জনকে প্রশিক্ষণ এবং ১ লাখ ৬৬ হাজার ৯৯৭ জনের অস্থায়ী কর্মসংস্থান হয়েছে। বৃহস্পতিবার ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির কেন্দ্রীয় সমন্বয় কমিটির এক সভায় জানানো হয়, এসব কর্মসংস্থানের মধ্যে যুবনারীর অংশগ্রহণ প্রায় শতকরা ৫১ ভাগ। এ কর্মসূচিতে নারীর ব্যাপক অংশগ্রহণের ফলে নারীদের ক্ষমতায়নের পথ সুগম হচ্ছে বলে জানানো হয়। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এ সভায় জানানো হয়, ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির অষ্টম পর্ব থেকে অনলাইনভিত্তিক আবেদন প্রক্রিয়াকরণ সেবা চালু করা হবে। কর্মসূচিতে সুবিধাভোগীদের ব্যাপক অংশগ্রহণ সংশ্লিষ্ট উপজেলাগুলোতে সরকারি বিভিন্ন বিভাগে কর্ম-চাঞ্চল্যের সৃষ্টি ও সেবার পরিধি এবং মান বৃদ্ধি করেছে। যুবদের দক্ষতা, আত্মবিশ্বাস ও সচেতনতা বৃদ্ধিসহ তাদের আর্থসামাজিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির অধীনে ১০টি মডিউলে ৩ মাস প্রশিক্ষণ প্রদান করে বিভিন্ন সরকারি সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানে ২বছরের জন্য অস্থায়ী কর্মসংস্থানে সংযুক্তি প্রদান করা হচ্ছে। পাশাপাশি স্থানীয় চাহিদার ভিত্তিতে বেসরকারি সংস্থাগুলোতে কর্মসংযুক্তির বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে। নূন্যতম এইচএসসি পাশ এবং ২৪ থেকে ৩৫ বছর বয়সী বেকার যুবরা ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির জন্য বিবেচিত হয়ে থাকে। পর্যায়ক্রমে দারিদ্র্য মানচিত্র মোতাবেক বিভিন্ন উপজেলাকে ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির আওতাভুক্ত করা হচ্ছে। এই কর্মসূচি বাস্তবায়নে সরকার এ পর্যন্ত ২০২৭ কোটি ৮২ লাখ টাকা বরাদ্দ করেছে। এ কর্মসূচি শিক্ষিত বেকার যুবদের বেকারত্ব মোচনের ক্ষেত্রে এক যুগান্তকারী সাফল্য বয়ে এনেছে। ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচিটি ২০০৯-২০১০ অর্থবছরে শুরু হয়। প্রথম পর্যায়ে পাইলট আকারে কুড়িগ্রাম, বরগুনা ও গোপালগঞ্জ জেলার ১৯টি উপজেলায় এ কর্মসূচি বাস্তবায়িত হয়। প্রথম পর্যায়ের সাফল্যের ভিত্তিতে দ্বিতীয় পর্যায়ে রংপুর বিভাগের ৭টি জেলার ৮টি উপজেলায়, ৩য় পর্বে ১৭টি জেলার ১৭টি উপজেলায়, ৪র্থ পর্বে ৭টি জেলার ২০টি উপজেলায়, ৫ম পর্বে ১৫টি জেলার ২৪টি উপজেলায়, ৬ষ্ঠ পর্বে ১৩টি জেলার ২০টি উপজেলায়,৭ম পর্বে ১৪টি জেলার ২০টি উপজেলায় এ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। যুব ও ক্রীড়া সচিব মো. আসাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 bnewsbd24.Com
Design & Developed BY Md Taher